‘অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড - Alice in Borderland (Season 2)’ – রিভিউ

শেষ পর্যন্ত এলিশ ইন বর্ডার ল্যান্ড সিজন ২ নিয়ে চলে এসেছি। অবশ্যই সিজন ২ পড়ার জন্য আপনাকে সিজন ওয়ান পড়তে হবে অথবা সিজন ১ সিরিজটি দেখতে হবে দেখতে হবে। কিন্তু আপনি যদি প্রথম সিজন না দেখেই দ্বিতীয় সিজন দেখতে শুরু করেন তাহলে আপনি কিছুই বুঝবেন না।আর আমি আপনাকে এতোটুকুই বলবো যদি আপনি এলিস ইন বর্ডারল্যান্ডের প্রথম সিজন দেখে থাকেন দ্বিতীয় সিজনটি ও দেখেছেন। আর যদি না দেখেন আপনি অবশ্যই থ্রিল থ্রিল থ্রিলএ ভরা এই সিরিজ দেখবেন।

Feb 8, 2024 - 13:30
Feb 8, 2024 - 18:16
 0  26
‘অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড - Alice in Borderland (Season 2)’ – রিভিউ
‘অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড - Alice in Borderland (Season 2)’ – রিভিউ

কাল্পনিক থ্রিলার ড্রামা স্ট্রিমিং টেলিভিশন সিরিজ অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড সিরিজটি জাপানিজ। পরিচালনা করেছেন শিনসুকে সাতো। ২০২০ সালে সিরিজটি তৈরি করা হয়েছে হারো আসোর মাঙ্গার উপর ভিত্তি করে। জুলাই ২০১৯ ঘোষণা করা হয়েছিল এর প্রথম সিজন এবং আগস্ট থেকে ডিসেম্বর ২০১৯ পর্যন্ত চিত্রায়িত হয়েছিল।


দ্বিতীয় সিজনটি ২২ ডিসেম্বর ২০২২ মুক্তি পায়। এবং সমালোচকদের কাছ থেকে ইতিবাচক পর্যালোচনা পেয়েছে
, যারা অ্যাকশন সিকোয়েন্স, নির্দেশনা এবং অভিনয়ের প্রশংসা করেছিল। সিরিজটি ১৯০টি দেশে আত্মপ্রকাশ করে এবং প্রথম সিজনটি রিলিজ হওয়ার পর ২৪ শে ডিসেম্বর ২০২২ এ নেটফ্লিক্স সিরিজটিকে দ্বিতীয় সিজনের জন্য রিভিউ করে।



অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড (Alice in Borderland) যে পুরস্কার জিতেছে
?

২০২১ এ ৩য় এশিয়া বিষয়বস্তু পুরষ্কার বর্ডারল্যান্ডে সেরা ক্রিয়েটিভ অ্যালিস মনোনীত ক্রিয়েটিভ বিয়ন্ড বর্ডার জিতেছে। সেরা OTT মূল মনোনীত কারিগরি অর্জন মনোনীত সেরা অভিনেত্রী মনোনীত তাও সুচিয়া এশিয়ান একাডেমি ক্রিয়েটিভ অ্যাওয়ার্ডস সেরা সিনেমাটোগ্রাফি তারো কাওয়াজু সহ টিভি সিরিজে সেরা ভিজ্যুয়াল বা বিশেষ ভিএফএক্স বা ফিচার ফিল্ম অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ড জিতেছে, সেরা পরিচালনা (কল্পনা) শিনসুকে সাতো ও জিতেছে।


সচরাচর সিরিজটি পরিবারকে নিয়ে দেখতে পারবেন না কারণ এটাতে অনেক অনেক অনেক সহিংসতার সাথে অনেক  ১৮+ দৃশ্যও দেখতে পাবেন। যদি এই সিরিজের ১ সিরিজ  আপনি দেখে থাকেন। তো গল্পটি শুরু হয়েছে যেখানে প্রথম সিরিজের গল্প শেষ হয়েছিল। যেখানে আরিছু এবং তার বন্ধু এই জিনিসটিকে খুঁজে বের করার চেষ্টা করছিল তাদের জীবনে যা হচ্ছিল তার পিছনে কে আছে। আর এই চাওয়াটাই তাদেরকে নেক্সট লেভেলের খেলার দিকে আকৃষ্ট করে তোলে। আর যখন তারা নেক্সট লেভেলের গেম আরিনা ভিতরে ঢোকে তখন তাদের দেখা হয় গেমের সিটিজেনদের সাথে।


আর সিটিজেন কারা সেটা জানার জন্য আপনাকে প্রবন্ধ পড়তে হবে না হলে সিরিজটি দেখতে হবে। আরিছু, উসাগি আর যারা বেঁচে ছিলো তারা কি খুঁজে বের করতে পারবে? তাদের জীবনে যা ঘটছিল তার পিছনে কে আছে? আর যদি খুঁজে বের করতে পারে তাহলে কি তাদের হারাতে পারবে? নাকি পারবে না? এগুলো সব জিনিস জানার জন্য আপনাকে দ্বিতীয় সিজনটি দেখতে হবে অথবা প্রবন্ধটি পুরোটা পড়তে হবে।


যদি দ্বিতীয় সিজন সম্পর্কে আপনাদের এক কথায় বলতে হয় দ্বিতীয় সিজনটি কেমন এক কথায় বলবো মাস্টার পিস সিরিজ। 
পুরো সিরিজ টাই থ্রিল দিয়ে ভরা থ্রিলের কমতি আপনি কখনো অনুভব করবেন না অনেক অনেক থ্রিলের মজা পাবেন। যদি আপনি বলেন, দ্বিতীয় সিরাজের নতুন কি ছিল? তাহলে অবশ্যই বলবো যে, সিটিজেনের যে পরিচয় পর্ব ছিল সেটা অসাধারণ ছিল। এবং দ্বিতীয় সিরাজে গেমের যে কাঠামো অনেক বেশি বিপদজনক এবং হাই লেবেল যেখানে মৃত্যুর কোন কমতি ছিল না আপনি অনেক অনেক মৃত্যু দেখতে পাবেন।


আর সে মৃত্যুর আতঙ্ক দেখে আপনি অনেক মজা পাবেন। গেমের স্টেক গুলাও হাই করা হয়েছে এবং লেভেল আপ করা হয়েছে। যার কারনে অনেকগুলি বিপদজনক জিনিসও দেখতে পাবেন। এমন কি অনেকগুলো নতুন ক্যারেক্টারও দেখতে পাবেন উদাহরণস্বরূপ কিউমা ক্যারেক্টার এই কিউমা ক্যারেক্টার যতক্ষণ পর্যন্ত স্ক্রিনে থাকবে ততক্ষণ আপনাকে উলঙ্গ অনুভব করাবে। ক্যারেক্টারের কথা বলতেছি তো এখানে মিউজিকের কথাও বলব।


যতগুলো নতুন ক্যারেক্টার দেওয়া হয়েছে তার সাথে মিউজিকও দেওয়া হয়েছে যে ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক টি দিয়ে আপনাদের অনুভব করানো হয়েছে সেটাও টপ ক্লাস। দ্বিতীয় সিজনের ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক খুবই অসাধারণ যেটা আপনার মনোযোগ 
 তৈরি করে দেবে। নতুন থেকে সরে এখন পুরাতন ক্যারেক্টার কথা বলি এই সিরিজের তো এখানে আমার অসাধারণ লেগেছে চিছিয়ার ক্যারেক্টারটা। কিন্তু এখানে যে মাইন্ড গেম টা খেলে সেটা হচ্ছে চিছিয়ার ক্যারেক্টার আর চিছির গেমের যেই পরীক্ষা আমি সেটা উপভোগ করেছি আশা করি আপনারা করবেন।


তো আমার মনে হয় তার যেই ক্যারেক্টার সেটা এই সিরিজের অতি আকর্ষণীয় ক্যারেক্টার ছিল। বাকি পছন্দের কথা যদি বলি বিক্রয়ের উত্পাদন মূল্য অনেক হাই রাখা হয়েছে যার কারনে আপনি খুবই বড় বড় বিস্ফোরণগুলো দেখতে পেয়ে যাবেন। 
 আর সেখানে যেই ভি এফ এক্স ব্যবহার করা হয়েছে সেটা তো আরো অসাধারণ।


নিরগীর ক্যারেক্টার নিয়ে যেই কৃত্রিম কাজ করা হয়েছে সেগুলোও ভি এফ এক্স দিয়ে করা যা দেখে আপনি খুবই মজা পাবেন। কিছু কিছু 
 বিস্ফোরণ গুলো স্লোমো সাথে আপনাকে যে ক্যামেরা অ্যাঙ্গেল দেখানো হয়েছে সেটাও খুবই অসাধারণ। অবশ্যই আমি এতটা বলব প্রথম পর্ব থেকে ৭ নম্বর পর্ব পর্যন্ত অনেক অনেক থ্রিল টেনশন এক্সাইটমেন্ট সব কিছু দেখতে পাবেন।


আপনি ক্যারেক্টারের জার্নি 
 উপভোগ করবেন মৃত্যুর আতঙ্ককেও  উপভোগ করবেন। কিন্তু ০৮ নাম্বার পর্ব আপনাকে পুরোই তাক লাগিয়ে দিবে। আপনি অবাক হয়ে বলবেন ভাই এটা কি ছিল। পুরো গল্পটাই ১ মিনিটের কমার ভিতরে ঘটে যায় এক কাহিনী


টোকিও সিটিতে মিটিউর এসে পরে যারা যারা ওই মেটিওরপরাতে আহত হয়।আর যারা এই মিটিয়র এর  কাছে ছিল তারা তারা আগে বর্ডারল্যান্ডে পৌঁছে গেছিল। আর এরিসু আর তার বন্ধুরা মিটিয়র এর থেকে অনেক দূরে ছিল বলে তারা তারা একটু পরে বর্ডারল্যান্ডে যায়। আর যারা যারা বর্ডারল্যান্ডে মারা যায় তারা তারা রিয়েল লাইফেও মারা যায় বেশি আহত হওয়ার কারণে। লাস্ট পর্ব টা পড়ুন অথবা সিরিজটি দেখুন তাহলে অবশ্যই বুঝতে পারবেন।


কিন্তু
 লাস্ট পর্বটা দেখে আপনার মন ভরবে না।কারণ সিরিজ টি রহস্যজনকভাবে শেষ করা হয়েছে। এমনভাবে শেষ করা হয়েছে। যে সিরিটি এভাবে রাখলেও হবে আবার তৃতীয় সিরিজ আসতেও পারে। আর আমি আপনাকে এতোটুকুই বলবো যদি আপনি অ্যালিস ইন বর্ডারল্যান্ডের প্রথম সিজন দেখে থাকেন দ্বিতীয় সিজনটিও  দেখেছেন। আর যদি না দেখেন আপনি অবশ্যই থ্রিল থ্রিল থ্রিল... এ ভরা এই সিরিজ দেখবেন।


পর্ব - ০১

গেমের পরবর্তী পর্যায় শুরু হয় যখন স্পেডসের রাজা, একজন বিশেষজ্ঞ মার্কসম্যান, খেলোয়াড়দের নির্বিচারে গুলি করতে শুরু করেন।  স্পেডসের রাজার খেলার আখড়া পুরো শহর, এবং তার উপস্থিতি তার মুখের কার্ড দিয়ে একটি ব্লিম্প দ্বারা চিহ্নিত করা হয়েছে যা তাকে অনুসরণ করে।


আরিসু
, উসাগি, কুইনা এবং টাট্টা একসাথে লুকিয়ে থাকে, যখন চিশিয়া এবং অ্যান আলাদাভাবে পালিয়ে যায়। এখনও উত্তর খুঁজছেন, আরিসু ক্লাবের রাজার বিরুদ্ধে খেলার সিদ্ধান্ত নেন, উসাগি, কুইনা, টাট্টা এবং নিরাগি তার সতীর্থদের সাথে। ক্লাবের রাজা কিউমা নিজেকে এবং তার দলকে দেশের 'নাগরিক' হিসাবে পরিচয় করিয়ে দেন


পর্ব - ০২

কিউমা ব্যাখ্যা করে যে সমস্ত ফেস-কার্ড গেমগুলি নাগরিকদের বিরুদ্ধে মৃত্যু ম্যাচ।  দ্য কিং অফ ক্লাবস গেম, "অসমোসিস" হল একটি পয়েন্ট-ভিত্তিক খেলা যেখানে খেলোয়াড়রা "ব্যাটলিং" সহ নির্দিষ্ট উপায়ে তাদের পয়েন্ট বাড়ানোর সুযোগ পায়, যেখানে দুইজন প্রতিপক্ষ খেলোয়াড় স্পর্শ করলে, উচ্চতর পয়েন্ট সহ খেলোয়াড় ৫০০ পয়েন্ট নেয় পরাজিত খেলোয়াড়ের কাছ থেকে।


শেষ পর্যন্ত সর্বোচ্চ পয়েন্ট সহ দলটি জয়ী হয়। 
 প্রথমে, আরিসুর দল নেতৃত্ব নেয়, শুধুমাত্র কিউমা এবং তার দলের নির্ভীকতা এবং তাদের দলকে জিততে সাহায্য করার জন্য মরতে ইচ্ছা করে বিস্মিত হয়। কিউমার দল ৫০০ পয়েন্টের লিড নেয়, আপাতদৃষ্টিতে আরিসুর দলের পক্ষে ধরার কোন উপায় নেই।


পর্ব - ০৩

কিউমা এবং আরিসু, যারা একে অপরকে বুঝতে পেরেছে, কাউন্টডাউন শেষ হওয়ার অপেক্ষায় একটি চ্যাট করেছে।  আরিসু বুঝতে পারে যে কিউমা এবং তার দল একসময় নিয়মিত খেলোয়াড় ছিল এবং ভয় পায় এর মানে হল যে সমস্ত গেম সাফ করা তাদের বাড়িতে ফিরে আসতে দেবে না।  আরিসু কিউমার হাত নেড়ে জিজ্ঞেস করে।


পরেরটি যখন করে
, তখন সে ৫০০ পয়েন্ট হারায়, আরিসুর দলকে এগিয়ে রাখে।  এটা প্রকাশ পেয়েছে যে টত্তা তার পয়েন্টের ব্রেসলেট আরিসুকে দেওয়ার জন্য তার হাত ভেঙেছে, যে একটি শেষ যুদ্ধ জিততে জমে থাকা পয়েন্টগুলি ব্যবহার করতে পারে।


কিউমা এবং তার দল তাদের মৃত্যু স্বীকার করে এবং তাট্টা তার আঘাতে মারা যায়। 
 অন্য কোথাও, চিশিয়া একটি জেলে জ্যাক অফ হার্টস গেম খেলে, যেখানে খেলোয়াড়দের হত্যা এড়াতে তাদের কলার পিছনে প্লেয়িং কার্ড স্যুটটি সঠিকভাবে অনুমান করতে হয় এবং একই সাথে তাদের মধ্যে লুকিয়ে থাকা জ্যাক অফ হার্টসকে খুঁজে পেতে হয়


পর্ব - ০৪

জ্যাক অফ হার্টস চিশিয়া এবং অন্য দুই খেলোয়াড়, একজন সিরিয়াল কিলার এবং একজন কন ম্যান খুঁজে পেয়েছেন।  সিরিয়াল কিলার এবং কন ম্যান তথ্যের জন্য জ্যাককে নির্যাতন করতে চায়, কিন্তু সে আত্মহত্যা করে, গেমটি শেষ করে।


কুইনা অ্যান এবং চিশিয়াকে খুঁজতে আরিসু এবং উসাগিকে ছেড়ে চলে যায়।
 টাত্তা এর মৃত্যুর পর আরিসু হতাশাগ্রস্ত, অনুমান করে যে সমস্ত গেমমাস্টারকে প্রাক্তন খেলোয়াড় বলে মনে হয়, গেমটি জিতলে তারাও গেমমাস্টার হয়ে উঠবে, কিন্তু উসাগি তাকে তার শিকারে সাহায্য করার জন্য অনুরোধ করে।


তারা টোকিওর বাইরে একটি সম্প্রদায় খুঁজে পায় যেটিকে স্পেডসের রাজা হত্যা করেছিল এবং একটি চলচ্চিত্র দেখে যেখানে একটি মেয়ে ব্যাখ্যা করে যে প্রবেশের আগে সবাই যে আতশবাজি দেখেছিল তা আতশবাজি ছিল না।


স্পেডসের রাজা আবার আক্রমণ করলে তারা আলাদা হয়ে যায়।
 আরিসুকে উদ্ধার করে আগুনি এবং তার নতুন বন্ধু হেইয়া



পর্ব - ০৫

পরিবর্তনের আগে, হেইয়া একটি মেয়ে যে অসার জীবনযাপন করে।  সে তার প্রথম খেলা "বয়লিং ডেথ"-এ নিজেকে খুঁজে পায়। তিনি একমাত্র বেঁচে আছেন, কিন্তু প্রক্রিয়ায় তিনি তার পা হারান।  এখন সে যে কোনো উপায়ে বাঁচতে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।


আরিসু আগুনি এবং হেইয়ার সাথে যোগ দেয় স্পেডসের রাজার জন্য একটি ফাঁদ তৈরি করতে
, কিন্তু পরিকল্পনা ব্যর্থ হয় এবং আরিসু তাদের থেকে আলাদা হয়ে যায়।  অ্যান শহরের বাইরে হাইকিং করে কিন্তু শুধু বন খুঁজে পান, চারপাশে বিশাল গর্ত।


কুইনা জ্যাক অফ স্পেডস গেম থেকে বেঁচে যায় কিন্তু একা লড়াই করে। 
 ঊসাগি  একটি অল্প বয়স্ক ছেলেকে সাহায্য করার সিদ্ধান্ত নেয় যার ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাচ্ছে তাকে কুইন  অফ  শপাদেস  গেমে নিয়ে গিয়ে তাকে রক্ষা করে।


আরিসুও খেলায় প্রবেশ করে
, উসাগির সাথে পুনরায় মিলিত হয়।  স্পেডস গেমের রানী হল "চেকমেট", যেখানে বিপরীত দল থেকে কাউকে তাড়া করে ট্যাগ করা তাদের আপনার কাছে স্থানান্তরিত করে এবং শেষ পর্যন্ত সর্বাধিক সংখ্যক সদস্যের দল জয়ী হয়।


উসাগির দল হারতে শুরু করে যখন অন্যান্য খেলোয়াড়রা স্পেডসের রানীর সাথে থাকার সিদ্ধান্ত নেয়


পর্ব - ০৬

উসাগি কিছু খেলোয়াড়ের মুখোমুখি হয়, তারা জিজ্ঞাসা করে যে তারা সত্যিই এই গেমগুলিতে থাকতে পছন্দ করবে কিনা, বাড়িতে যাওয়ার এবং আবার শুরু করার সম্ভাবনার জন্য অপেক্ষা করার পরিবর্তে। ঊসাগি এর যুক্তি কাজ করে, এবং খেলোয়াড়রা একসাথে কাজ করে, গেমটি জিতেছে।


অ্যারিসু এবং উসাগি একটি স্টেডিয়ামের অবশিষ্টাংশে উষ্ণ প্রস্রবণ খুঁজে পান
;  তারা একসাথে স্নান করে এবং একটি চুম্বন ভাগ করে নেয়। চিশিয়া এবং অন্য তিনজন "ব্যালেন্স স্কেল" খেলেন, একটি গণিত/যুক্তিবিদ্যার খেলা, কুজুরুর বিরুদ্ধে, হীরার রাজা এবং প্রাক্তন বিচ নির্বাহী সদস্য।


চিশিয়া বুঝতে পারে যে কুজুর্যু সব জীবনের সমান মূল্য আছে কিনা তা বের করার চেষ্টা করছে
;  সে কুজুর্যুকে তাকে হত্যা করার সুযোগ দেয়, কিন্তু কুজুর্যু চিশিয়াকে জয়ী হতে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়


পর্ব - ০৭

কুইনা এবং অ্যান কুইন অফ ক্লাবস গেমে পুনরায় একত্রিত হন এবং একসাথে জয়লাভ করেন।  দুটি মুখোমুখি খেলা বাকি, খেলোয়াড়রা শিবুয়ায় একত্রিত হতে শুরু করে।  নিরাগী, আরিসু এবং চিশিয়া শিবুয়া ক্রসিংয়ে মিলিত হয়।


নিরাগী অন্য দুজনকে বন্দুকযুদ্ধে টেনে নিয়ে যায়
, এই সময় আরিসু নিরাগিকে গুলি করে এবং চিশিয়াকে গুলি করা হয় উসাগীর জীবন বাঁচাতে।  স্পেডসের রাজা আসে।  অ্যারিসু এবং উসাগি অ্যান, কুইনা, আগুনি এবং হেইয়ার সাথে দল বেঁধেছেন।


আরিসু একটি ফাঁদ প্রস্তুত করার সময়
, অন্যরা স্পেডসের রাজার সাথে জড়িত, যে তাদের একে একে পরাজিত করে। আগুনি এবং আরিসু স্পেডসের রাজাকে একটি বিস্ফোরক দিয়ে উড়িয়ে দেয় এবং আগুনি শেষ পর্যন্ত তাকে মাথায় গুলি করে।


তাদের বাকি বন্ধুদের আহত এবং মৃত্যুর কাছাকাছি নিয়ে
, আরিসু এবং উসাগি জিনিসগুলি শেষ করতে হার্টস গেমের চূড়ান্ত খেলায় যান


পর্ব - ০৮

মীরাকে হৃদয়ের রানী হিসাবে প্রকাশ করা হয়, এবং তার খেলা হল "ক্রোকেট", যেখানে আরিসুকে শুধুমাত্র খেলা ছাড়াই তিনটি রাউন্ড খেলতে হবে, কে জিতুক বা হারুক না কেন। মীরা প্রকাশ করে যে তিনি সেভেন অফ হার্টস গেমটি ডিজাইন করেছিলেন যা আরিসুর বন্ধুদের হত্যা করেছিল।


এটি আরিসুকে ক্ষুব্ধ করে
, যতক্ষণ না সে বুঝতে পারে যে সে যদি মীরাকে হত্যা করে, তারা কখনই খেলাটি শেষ করতে পারবে না। মীরার মনস্তাত্ত্বিক টানাটানি আরিসুর মন ভেঙে দেয়, এবং সে হ্যালুসিনেশন করে যে সে একটি মানসিক হাসপাতালে রয়েছে মীরাকে তার মনোরোগ বিশেষজ্ঞ হিসেবে, তাকে প্রস্থান করতে রাজি করার চেষ্টা করছে।


উসাগি তার কব্জি কেটে এবং তাকে বাঁচাতে ফিরে আসতে রাজি করার মাধ্যমে আরিসুকে তার মানসিক ভাঙ্গন থেকে বের করে আনতে পরিচালনা করে। 
 মীরা স্পর্শ করে যে তাদের ভালবাসা আরিসুকে হ্যালুসিনেশন থেকে বের করে আনতে সক্ষম হয়েছিল এবং সে আরিসুর সাথে ক্রোকেট গেমটি শেষ করে।


শেষ খেলা বীট
, সব খেলোয়াড়দের "স্থায়ী বাসিন্দা" বা না হতে পছন্দ দেওয়া হয়.  খেলোয়াড় যারা এখনও বেঁচে আছে এবং যারা না থাকার জন্য বেছে নেয় তারা নিয়মিত বিশ্বে জেগে ওঠে, যেখানে তারা টোকিওতে একটি উল্কাপিণ্ডের দুর্ঘটনা থেকে বেঁচে যায়।


আরিসুর ভাই তাকে বলে যে তার হৃদয় এক মিনিটের জন্য থেমে গিয়েছিল
, সেই সময় তিনি জীবন এবং মৃত্যুর মধ্যবর্তী সীমানায় ছিলেন। জীবিতরা অন্য জগতে তাদের অভিজ্ঞতা মনে রাখে না, তবে কেউ কেউ একে অপরকে চিনতে পারে, যার মধ্যে আরিসু এবং উসাগি, যারা একটি ভেন্ডিং মেশিনে দেখা করে এবং একসাথে হাঁটার সিদ্ধান্ত নেয়।


শেষ শটটি তাস খেলার টেবিলের
, জোকার কার্ডে ফোকাস সহ

আপনার প্রতিক্রিয়া কি?

like

dislike

love

funny

angry

sad

wow